ভারতীয় ক্রিকেটারদের সাথে আমাদের সম্পর্ক বন্ধুত্বপূর্ণ : মাশরাফি

ভারতীয় ক্রিকেটারদের সাথে আমাদের সম্পর্ক বন্ধুত্বপূর্ণ : মাশরাফি
স্পোর্টস ডেস্কঃ বাংলাদেশ-ভারত ক্রিকেট ম্যাচ মানেই এখন আগুন উত্তাপ। গত ২০১৫ বিশ্বকাপের বিতর্কিত সেই কোয়ার্টার ফাইনালের পর থেকেই চলে আসছে এমন অবস্থা। দুই দলের দ্বৈরথ হলেই দুই দেশের দর্শকদের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। এর মূল প্ল্যাটফর্ম হলো সোশ্যাল সাইট। তবে দুই দেশের বেশ কিছু মিডিয়াও কথার লড়াইয়ে মাতে। কিন্তু দুই দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে কেমন সম্পর্ক? টাইগার ক্যাপ্টেন মাশরাফি বিন মুর্তজা বললেন, ক্রিকেটাররা বন্ধুর মত; দ্বন্দ্ব কেবল দর্শকদের মধ্যেই। গতকাল শনিবার এবিপি আনন্দ প্রদত্ত 'সেরা বাঙালি' পুরস্কার গ্রহণ করেছেন টাইগার ক্যাপ্টেন। অনুষ্ঠান শেষে ওপার বাংলার জনপ্রিয় দৈনিক আনন্দবাজারকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এমনটা বলেন মাশরাফি। ম্যাশ বলেন, 'আমাদের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেটারদের সম্পর্ক মোটেই খারাপ নয়। সে মাঠে বলুন বা মাঠের বাইরে। এই তো সে দিন চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে বার্মিংহামে হারার পরেও আমরা নিজেদের মধ্যে গল্প করেছি, আড্ডা দিয়েছি। যুবরাজের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব যেমন রয়েছে, তেমনই কোহলির সঙ্গে আমাদের রুবেল, মুশফিকদের ভাল সম্পর্ক। ' যদিও বিরাট কোহলির সঙ্গে পেসার রুবেল হোসেনের পুরনো দ্বন্দ্বের কথা সবাই জানেন। এখন হয়তো তাদের মধ্যে বন্ধুত্বও হতে পারে। ম্যাশ ড্রেসিংরুমে যেমন বন্ধুত্বপূর্ণ আবহ তৈরী করে রাখেন তেমনি হয়তো সতীর্থদেরকেও একই উৎসাহ দিয়ে থাকেন। কিন্তু মাঠের খেলায় দুই দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে স্লেজিংও কি হয় না? মাশরফি বললেন, 'না, না। স্লেজিংও হয় না। যেটুকু হয় সীমার মধ্যেই থাকে। মারাত্মক পর্যায়ে কিছু হয় না। ' বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ মানেই যে বারুদের গন্ধ ছড়িয়ে পড়া সেটা ম্যাশ ভালো করেই জানেন। এজন্য তিনি দুষলেন সোশ্যাল সাইটকেই। ম্যাশের ভাষায়, 'এর জন্য সোশ্যাল মিডিয়া বোধহয় অনেকটাই দায়ী। আর একটা কারণও হতে পারে। আমরা যেহেতু এখন আগের চেয়ে অনেক ভাল খেলছি, তাই আমাদের কাছে আমাদের দেশের মানুষের প্রত্যাশা বেড়ে গেছে। জয়ের আশায় একে অপরের বিরুদ্ধে মন্তব্য পাল্টা মন্তব্য করে ফেলেন সবাই। ' শেষে ম্যাশ আবারও বলেন, 'বাইরে যতই যুদ্ধ যুদ্ধ ভাব থাক, মাঠে কিন্তু তা থাকে না। আমরা দুই দেশের খেলোয়াড়রাই স্পোর্টিং থাকার চেষ্টা করি। প্রতিযোগিতার জন্য যেটুকু উত্তেজনা থাকে। এটা কখনও হিংসার পর্যায়ে যায় না। '

Share on Google Plus

About daily bd mail

ডেইলি বিডি মেইলেঃ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি
    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment