এবারের বিপিএল হবে বঙ্গবন্ধুর নামে, থাকবে না ফ্রাঞ্চাইজি


স্পোর্টস ডেস্ক: ২০১৮ সালের বিপিএল বিভিন্ন কারণে আয়োজন করতে হয়েছে চলতি বছরের শুরুতে। আবার এ বছরই আরেকটা বিপিএল আয়োজন নিয়ে কয়েকটা ফ্রাঞ্চাইজি আপত্তি তুলেছিল। একই সঙ্গে বিসিবিও জানিয়েছে, পুরনো চুক্তি শেষ। নতুন করে মালিকানা চুক্তি করতে হবে ফ্রাঞ্চাইজিগুলোকে।

এসব নিয়েই তৈরি হয়েছে নানা জটিলতা। শেষ পর্যন্ত আজ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, নির্ধারিত সময়েই বিপিএল আয়োজন করা হবে। কিন্তু আগের ছয় আসরের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক নয়, এবারের বিপিএল পরিচালনা করবে বিসিবিই। সেই সঙ্গে এবারের বিপিএল আয়োজন করা হবে বঙ্গবন্ধুর নামে।

‘একই বছর দুটি বিপিএল’- এ নিয়ে নানা গুঞ্জন আর প্রশ্ন উঠেছিল। কয়েক দিন ধরেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, এ বছর বিপিএল অনুষ্ঠিত হবে কি না। কিন্তু বিসিবি সভাপতি আজ দুপুরে মিডিয়ার সামনে উপস্থিত হয়ে জানিয়েছেন, এ বছর বিপিএল নির্ধারিত সময়েই হবে। তবে টুর্নামেন্টটি ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক হচ্ছে না। টুর্নামেন্টের নাম হবে, ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’।

বিসিবির ঘোষণা অনুযায়ী মালিকানা সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে ফ্রাঞ্চাইজিদের সঙ্গে ধাপে ধাপে বৈঠক করেছিল বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। সেখানে ফ্রাঞ্চাইজিগুলো বিপিএল নিয়ে নিজেদের মতামত জানিয়েছে বিসিবিকে। সেই মতামত জানার পরই বিসিবি মনে করছে, অন্তত এ বছর বিপিএল ফ্রাঞ্চাইজিভিত্তিক আয়োজন করা সম্ভব হবে না।

এ কারণেই মিডিয়ার সামনে উপস্থিত হয়ে বিসিবি সভাপতি আজ দুপুরে বলেন, ‘বিপিএলের প্রথম পর্ব শেষ। নতুন চুক্তি করতে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে বসেছিলাম। কয়েকটা ফ্র্যাঞ্চাইজির বেশকিছু দাবি-দাওয়া আছে। ওই দাবিগুলো আমাদের মূল কাঠামোর সঙ্গে সাংঘর্ষিক। কিছু ফ্র্যাঞ্চাইজি দাবি করছে, এক বছরে দুটি বিপিএল তারা চায় না। খেলবে না সেটি অবশ্য বলেনি। ওদের ওপর চাপ বেশি পড়ে যাবে । সবকিছু চিন্তা করে ঠিক করেছি এবারের বিপিএল আমরাই (বিসিবি) চালাব। টুর্নামেন্টটা আমরা ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক করছি না।’

পুরো টুর্নামেন্ট এবং ফ্রাঞ্চাইজির মালিক যদি বিসিবিই হয়, তাহলে দল এবং টুর্নামেন্ট ব্যবস্থাপনা কীভাবে হবে? সে ব্যাপারগুলোও খোলাসা করে দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, ‘এবারের বিপিএলটা আমরা বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করব। টুর্নামেন্ট তার নামেই হবে। সব দলই ঠিক থাকবে, শুধু ম্যানেজমেন্টের অংশ বিসিবি দেখবে। খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক, থাকা-খাওয়া, যাতায়াত সবই বিসিবি তত্ত্বাবধান করবে। এতে আশা করি সবাই খুশি হবে। অনেকটা বিগ ব্যাশের মতো।’

বোঝা গেলো, পুরনো নামগুলোই থাকছে এবারের বিপিএলে। শুধু পেছনের মালিকানায় কোনো পক্ষ থাকবে না। একপক্ষ তথা বিসিবিই হবে সব দলের মালিক। তবে কেউ যদি কোনো দলকে স্পন্সর করতে চায়, সে সুযোগ থাকবে। আগের মতোই খেলোয়াড় নিলাম হবে। টুর্নামেন্ট শুরু হবে নির্ধারিত সময়ে। কোচিং স্টাফসহ সব কর্মকর্তা নিয়োগ দেবে বিসিবি। যদি কোনো দলকে কেউ স্পন্সর করে এবং তারা নিজেদের পছন্দমতো বিদেশি খেলোয়াড় আনতে চায়, তাতে বাধা থাকবে না।

বিসিবি সভাপতির সাফ কথা, বিপিএল ফ্রাঞ্চাইজিগুলো যে শর্ত দিয়েছে, তাতে খুব অল্প সময়ের মধ্যে সেগুলো পূরণ করা সম্ভব নয়। যে কারণে কারো সঙ্গেই বিসিবি চুক্তি করবে না এবং ঝুঁকি সত্ত্বেও নিজেদের টাকা খরচ করেই এবার বিপিএল আয়োজন করতে চায় তারা। নিজেদের আয়োজন এবং মালিকানায় অনুষ্ঠিতব্য টুর্নামেন্টটির নামকরণ করা হচ্ছে, ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’।

Share on Google Plus

About daily bd mail

ডেইলি বিডি মেইলেঃ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি
    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment