পিতার বাড়ি থেকে গৃহবধুর গলাকাটা লাশ উদ্ধার


নিউজ ডেস্কঃ কুলাউড়ায় পিতার বাড়ি থেকে রাবিয়া বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধুর গলাকাট লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের ফটিগুলি থেকে শুক্রবার ২৪ মে বেলা ১২টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। ওই গৃহবধু ইউনিয়নের ফটিগুলী গ্রামের আব্দুল লতিফের  মেয়ে এবং একই ইউনিয়নের দীঘলকান্দি গ্রামের তাহির আলীর স্ত্রী।
 
স্থানীয় সূত্র থেকে জানা যায়, শুক্রবার ২৪ মে সকালে স্বামীর বাড়ি দীঘলকান্দি থেকে ফটিগুলিতে নিজের পিত্রালয়ে আসেন গৃহবধু রাবিয়া বেগম। সবার অজান্তে দুপুর ১২টার দিকে ধরালো দা দিয়ে নিজ গলাকেটে কেটে ফেলেন। এসময় ছটফটানির শব্দে পার্শবর্তী ঘরের লোকজন এগিয়ে এসে ঘটনা দেখতে পান। কিছুক্ষণের মধ্যে ঘটনাস্থলেই মারা যান রাবিয়া বেগম। স্থানীয়রা কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে কুলাউড়া থানার এসআই হারুন আল রশীদ ঘটনাস্থলে যান এবং লাশ উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।
 
স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, কয়েকবছর আগে তাহির আলীর সাথে বিয়ে হয় রাবিয়া বেগমের এবং তাদের ঘরে ২ মেয়ে ও ১ ছেলে রয়েছে। অভাব অনটনসহ পারিবারিক বিভিন্ন সমস্যার কারণে স্বামীর সাথে মাঝে মধ্যে রাবিয়া বেগমের মনোমালিন্য হতো। ঘটনার দিন হঠাৎ স্বামীর বাড়ি থেকে পিতার বাড়িতে এসে নিজ গলা দা দিয়ে কেটে ফেলার বিষয়টি রহস্যজনক।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান জানান, গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনা তদন্তক্রমে এবং ময়নাতদন্ত রিপোর্ট সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share on Google Plus

About A K M Jaber

ডেইলি বিডি মেইলেঃ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বে আইনি
    Blogger Comment
    Facebook Comment

0 comments:

Post a Comment